“অমানুষ” বনি আমিন এর মোনাজাত (চলুনঃ ৮০% বাংলাদেশি মুসলিমদের মুখোশ খুলে দেই)

“অমানুষ” বনি আমিন এর মোনাজাত (চলুনঃ ৮০% বাংলাদেশি মুসলিমদের মুখোশ খুলে দেই)

আল্লাহুমা ইন্নি আসোয়ালুকাল হুদা ওয়াতুক্কা ওয়াল আ’ফাফা ওয়াল গিনা l
ইয়া আল্লাহ, ইয়া রাব্বুল আলামিন
ইয়া দ্বীন দুনিয়ার মালিক, ইয়া রাহমানুর রাহিম –
আমি বনি আমিন, আমি এক অমানুষ বান্দা তোমার পেয়ারে দোস্ত
রাসূল (সঃ)এর উম্মত দুহাত তুলে আজ তোমার দরবারে ফরিয়াদ করছি l

ইয়া মাবুদ আমি অমানুষ, আমার নিজের জন্য কিছুই চাইনা
ইয়া রাহমানুর রাহিম
আমার জন্মদেশের মা বোনের (নারী/যুবতী) জন্যই শুধু তোমার দরবারে,
করছি ফরিয়াদ আজ তাহাজ্জুদ শেষে দুরাকাত পড়ে নফল নামাজ |

ইয়া মাবুদ তোমার পবিত্র মক্কায় প্রতি বছর মাটির তৈরী লাখো
আশরাফুল মাখলুকাত ও আগুনের তৈরী ফেরেস্তাদের মিলন হয়,
ইয়া রাহমানুর রাহিম তোমার নির্ধারিত ‘পৃথিবীর কেন্দ্র বিন্দু’
এবং তোমার সবচে পছন্দের ভূমি এই সাউদ আরবে হজ্ব পালন হয়
অতঃপর হজ্ব পালণ শেষে তোমার বান্দার তাবৎ গুনা-খাতা তুমি মাফ করে দাও l
ভবলীলা সাঙ্গ হলে শুধুমাত্র ‘মুসলমানি নাম’এর কারণে বীরদর্পে তারা পুলসিরাতের সাঁকোর
উপর দপদপিয়ে হেঁটে ওপাড়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে তোমার সেই মুসলমান বান্দা এবং জান্নাত পায় l

ইয়া মাবুদ তোমার পছন্দের সেই পবিত্র দেশেই আমার জন্মদেশের নারীরা হামেশা ধর্ষিতা হয়,
তোমার পেয়ারে দোস্ত (সঃ)এর পবিত্র জন্মভূমিতেই এই অভাগীরা হামেশা নিপীড়িত হয়,
ইয়া খোদা, ইয়া মাবুদ, আমার জন্মদেশের মা বোনের কান্নায় তোমার পবিত্র মরুভূমি সিক্ত হয়,
তাদের আহাজারিতে, তাদের কষ্ট দেখে তোমার আরশ কখনো কি কম্পমান হয় না ?

আমি বনি আমিন, আমি অমানুষ দুহাত তুলে তোমার দরবারে ফরিয়াদ করছি-
তুমি আমার জন্মদেশের কন্যা-জায়া-জননীদের ইজ্জত হেফাজত করো
তুমি তোমার ভালোবাসার সেই সৌদি ‘যৌন বুভুক্ষ’দের হাত থেকে তাদের রক্ষা করো।
তুমি কি দেখো না, আমার জন্মদেশের নারী/যুবতী কন্যারা অর্থাভাবে আরবদেশে যায়,
আমাদের ফেলানীরা ‘মূর্তি পূজক’দের গুলি খেয়ে কাঁটাতারে জীবন বিলায় ?

ইয়া আল্লাহ তুমি আমার জন্মদেশের সেই দুর্ভাগা মুসলমানদের সুমতি দাও,
তাদের বিদ্যা দাও, বিজ্ঞান দাও, চিকিৎসা জ্ঞান দাও, অর্থ দাও – যাতে
সাধারণ পেটের পীড়া বা অম্বল চেক করানোর জন্যে ‘কম্বল’ গায়ে দিয়ে
কম্পমান দেহে রোগাগ্রস্ত কোনো ‘মাকসুদুল মুমিন’কে দেশ ছেড়ে আর যেনো
কখনো কোনো ‘মূর্তিপূজক’দের দেশে চিকিৎসা করতে যেতে না হয়। – আমীন

ইয়া আল্লাহ আমার জন্মদেশের নারী/যুবতীরা যারা তোমার নির্বাচিত পবিত্র ভূমি
সাউদ আরবে যায়, তারা সকলেই হত-দরিদ্র, কিন্তু ওই নারীদের বেশির ভাগই
তোমার পছন্দের ভাষা ‘আরবী’তে তোমার পাঠানো পবিত্র কিতাব ‘আল ফোরকান’
না বুঝেও তাদের সকলের পড়া থাকে, জন্ম থেকেই ওদের পেটে দায় থাকলেও
শৈশব থেকে তোমারই সেই পবিত্র কিতাব তাদের বাধ্যতামূলক পড়া আছে।
হে আল্লাহ তোমার ইস্তেকবাল, তোমার নূরের ছোয়াঁয় আলোকিত, তোমার জান-কোরবান,
তোমার পেয়ারের একমাত্র মানব সম্প্রদায় সেই সাউদ বংশের ‘খুজলি – দাউদ’ বা
আরোবি শেখদের নিঙ্গানন্দ ‘রস’ দিয়ে তুমি আমার জন্মদেশের সেই অভাগী
নারী/যুবতীদের খালি-পেট আর ভরে দিওনা, – আমীন

আমার জন্মদেশের মুসলমান নারী/যুবতীরা অভাবে খালি পেটে তোমার পবিত্র দেশ
সাউদ আরবে গিয়ে আর যেনো ধর্ষিত হয়ে তোমার ‘নেয়ামতের বীর্য’ নিয়ে
‘ভরা পেটে’ অথচ ‘খালি হাতে’ স্বদেশে ফিরতে না হয় – আমীন

হে মাবুদ, বঙ্গ দেশের সকল ওয়াজি হুজুরদের উপর তোমার নালত-বর্ষণ কর যাতে
তারা তোমার অপছন্দের সেই ‘মূর্তি পূজক’দের ‘জিনা-হারাম’ করা সমালোচনার পাশাপাশি
তোমার সেই পবিত্র মাটি থেকে যে ‘মুসলিম-বীরঙ্গনা’রা ভর-পেট ‘হালাল বীর্য’ নিয়ে দেশে
ফেরত আসে তাদের কষ্টের কথা, তাদের নির্যাতনের কথা তোমার পেয়ারের দোস্ত
এবং তোমার মুহাব্বতের আদম জাতি ‘যৌন বুভুক্ষ’ সেই ‘সাউদ জালিম’দের
নিয়েও ওয়াজ করে, আওয়াজ তোলে, তোমার কাছে হাত তোলে। – আমীন

আমার জন্মদেশের মানুষগুলোকে তুমি হালাল উপার্জনের তৌফিক দান করো,
সত্যিকারের মুসলমান হলে সেই বান্দা যেনো কখনো কোনো ভিডিও বা সিনেমা না দেখে,
তোমার হুজুরেরা যেন ইয়াহুদী বা খ্রিস্টানের সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার না করে,
হে আল্লাহ, তুমি তাদেরকে ভিডিও তৈরী করা, সেলফি তোলা এবং ছবি তোলা হারাম ঘোষণা
করে পুনরায় এই ধরাধামে আরেকটি আয়াত বা সূরা নাজিল করো – আমীন

আমার জন্মদেশের কোনো অভাবী নারীকে যেন আর ফেলানী’র ভাগ্যবরণ করতে না হয়,
কোনো ভুখা নারী বা যুবতীকে যেন তার পেটের দায় ‘লিঙ্গানন্দের শিকার’ হতে
কাঁটাতারের বেড়া ডিঙ্গিয়ে ওপাড়ে তোমার ঘৃণিত ‘মূর্তি পূজকদের’ দেশের
বেশ্যালয়গুলোতে গিয়ে যেন আশ্রয় পেতে না হয় – আমিন

আমার জন্মদেশের মুসলিম নারী/যুবতীদের ইজ্জত তুমি হেফাজত করো – আমীন

ইয়া দোজাহানের মালিক, ইয়া মাবুদ, তোমার ইশারা ছাড়া চন্দ্র সূর্য ওঠেনা,
তোমার মর্জি ছাড়া হাওয়া বহেনা, তোমার হুকুম ছাড়া গাছের পাতা নড়েনা,
তোমার ইচ্ছা ছাড়া গাছে ফল ধরেনা, তোমার ইশারা ছাড়া কোনো ‘ওয়াজি হুজুর’
কখনো কোনো ওয়াজ করতে পারে না, তোমার ‘উস্কানি’ ছাড়া সেই হুজুরেরা
তোমার সৃষ্ঠ সেই ‘মূর্তিপূজক’দের জীবন প্রতিনিয়ত অতিষ্ঠ করতে পারে না,
তোমার অনুমুতি ছাড়া এই ওয়াজি হুজুরেরা তোমার পছন্দের ও যৌন-বুভুক্ষ জাতি
সাউদ আরবের মানুষদের বিরুদ্ধে কোনো কথা বলতে পারে না, তুমি আমার জন্মদেশের
সেই ‘ধর্মান্ধ ওয়াজি হুজুর’দের চোখ খুলে দাও, মুখ খুলে দাও হে মাবুদ – আমীন

তুমি হায়াৎ, মাউত, রিজিক- দৌলতের মালিক, আমি অমানুষ আরো ফরিয়াদ করছি –
তুমি আমার জন্মদেশের ১৮ কোটি আশরাফুল মাখলূকাতদের সঠিক ঈমান দান করো – আমীন

তুমি আমার জন্মদেশের ‘মুসলমান নামধারী’ ৮০% কাফের ও জালিমদের
হেদায়েত দান করো, ওয়াজ করে টাকা উপার্জনকারী সেই মিজানুর আহাজারি বা
কওমি মাওলানা মামুনদের মত জালিম হুজুর, ‘সেলফি হুজুর’ এবং
‘ভিডিও-বাজ হুজুরদের’ কাছ থেকে তুমি আমার জন্মদেশকে নাজাত দাও
– আমীন – আমীন – – সুম্মা আমীন – – বনি আমিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *